হোম মোটরসাইকেল রিভিউ ফিচার রিভিউ ইয়ামাহা আর ১৫ এস (Yamaha R15S) ফিচার রিভিউ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস (Yamaha R15S) ফিচার রিভিউ

0
0
ইয়ামাহা আর ১৫ এস

ইয়ামাহা আর ১৫ এস (Yamaha R15S) ফিচার রিভিউ

জাপানিজ মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড ইয়ামাহা এর অন্যতম সফল এবং জনপ্রিয় মোটরসাইকেল সিরিজ হচ্ছে ইয়ামাহা আর ১৫। এই ইয়ামাহা আর ১৫ বাংলাদেশে ব্যাপক সাড়া জাগানো একটি মোটরসাইকেল। আর তার অন্যতম কারণ হচ্ছে এই বাইকের অসাধারণ ডিজাইন এবং উন্নত মানের সব ফিচার সমূহ। আর এই ইয়ামাহা আর ১৫ এর আপডেটেড ভার্সন হচ্ছে ইয়ামাহা আর ১৫ এস। যে কোন মোটরসাইকেল সিরিজের আপডেটেড ভার্সনের প্রতি সবসময় মোটরসাইকেল প্রেমিদের আলাদাই একটা নজর থাকে এই বাইকের ক্ষেত্রেও মোটরসাইকেল প্রেমিদের ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। আর আজকে আমি আপনাদের মাঝে ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলটির ফিচার সমূহ উপস্থাপন করবো আশা করি সবার বেশ ভাললাগবে। তো চলুন জেনে নেয়া যাক ইয়ামাহা আর ১৫ এস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যসমূহ।

ডিজাইনঃ

অসাধারণ স্টাইলিশ ডিজাইনের একটি স্পোর্টস বাইক হচ্ছে এই ইয়ামাহা আর ১৫ এস যেটি দেখলে সহজে কেউ চোখ ফেরাতে পারবেনা। এই বাইকের চমৎকার আকর্ষনিয় এবং স্টাইলিশ ডিজাইনের হেডলাইটটি বাইকের অন্যতম একটি আকর্ষন। আর এই বাইকের হেডলাইট থেকে শুরু করে এর ইঞ্জিন পর্যন্ত লাগানো রয়েছে চমৎকার কিছু বড় আকারের সেপ যেগুলো খুব সুন্দর ডিজাইন করা। এই বাইকের ফুয়েল ট্যাংকটি মোটামুটি বড় আকারের কিন্তু খুব একটা উঁচু ধরণের নয় আর এই ফুয়েল ট্যাংকটিও বেশ আকর্ষনিয় দেখতে। ইয়ামাহা আর ১৫ এস বাইকের বসার সিটটি মোটামুটি লম্বা আকারের এবং এটি উঁচু নিচু আকারের একটি সিট যেটি মূলত দুজন মানুষ আরহন করার জন্য তৈরি করা হয়েছে এবং বসার জন্য এই সিটটি অনেক আরামদায়ক। আসাধারণ সব রঙের কারুকাজ এবং বিশাল আকারের সেপ সমূহ এই বাইকে সৌন্দর্যকে বৃদ্ধি করেছে অনেক যার কারণে এই বাইকটি হয়ে উঠেছে দৃষ্টি নন্দন একটি চমৎকার স্পোর্টস স্টাইলিশ বাইক।

ইঞ্জিনঃ

৪টি স্ট্রোক, ৪টি ভাল্ভ এবং একটি এসওএইচসি সমৃদ্ধ ইঞ্জিন দিয়ে সাজানো হয়েছে এই ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনটি। এই বাইকটিতে ডিস্প্লেসিমেন্ট ইঞ্জিন থাকছে ১৪৯.৮ সিসি যা অনেক উন্নত মানের। আর এই বাইকের ইঞ্জিনের সর্বচ্চ পাওয়ার হচ্ছে ১৬.৮ বিএইচপি এবং ৮৫০০ আরপিএম এবং বাইকের সর্বচ্চ তোরকিউ হচ্ছে ১৫ এনএম এবং ৭৫০০ আরপিএম আর এগুলো এই বাইকের ইঞ্জিনের গতি বৃদ্ধি করতে অনেক সাহায্য করবে। এছাড়াও এই ইঞ্জিনটিতে পাবেন একটি টিসি আই ইগনিশন সিস্টেম, একটি ফুয়েল ইঞ্জেকশন কার্বুরেটর এবং একটি ইলেক্ট্রিক স্টার্টিং সিস্টেম।  

গিয়ারঃ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলটিতে ৬টি গিয়ার সংযুক্ত করা হয়েছে যা এ ধরণের স্পোর্টস বাইকের জন্য বেশ ভাল।

স্পিড এবং মাইলিয়েজঃ

বেশ ভাল মানের স্পিড এবং মাইলিয়েজ রয়েছে এই ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলটিতে। এই মোটরসাইকেলটি প্রতি ঘন্টায় সর্বচ্চ ১৩০ কিলোমিটার গতি বেগে ছুটতে সক্ষম যা বেশ ভাল মানের স্পিড। এছাড়াও এই বাইকটি আপনাকে প্রতি লিটারে ৪৫ কিলোমিটার পর্যন্ত নিয়ে যেতে সক্ষম।

ফুয়েল ট্যাংকঃ 

ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংকটি চমৎকারভাবে ডিজাইন করা এবং এই ফুয়েল ট্যাংকটি খুব বড় সাইজের এবং সামান্য উঁচু ভাবে তৈরি করা হয়েছে আর এই ফুয়েল ট্যাংকটি সর্বচ্চ ১২ লিটার পর্যন্ত ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা রয়েছে যাতে করে এই ট্যাংকটি সম্পূর্ণ ভর্তি ফুয়েলে প্রায় ৫৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত ভ্রমন করতে পারবেন।

সাস্পেনশনঃ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলটিতে বেশ উন্নত মানের দুটি সাস্পেনশন সিস্টেম তৈরি করা হয়েছে। এই বাইকের সামনের দিকে রয়েছে একটি টেলিস্কপিক ফোর্ক্স সাস্পেনশন এবং এর পেছনের দিকে আছে একটি লিংকড ধরণের মনোক্রস সাস্পেনশন সিস্টেম যা এই বাইকটিকে করে তুলেছে আরো মজবুত।

ব্রেকঃ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলের দুটি শক্তিশালী ব্রেক আপনাকে এই বাইকটি সহজে নিয়ন্ত্রন করতে সাহায্য করবে। এই বাইকের সামনের দিকে রয়েছে একটি ডিস্ক ব্রেক এবং এর পেছনের দিকেও রয়েছে একটি ডিস্ক ব্রেক যেগুলো সত্যিই খুব মজবুত এবং শক্তিশালী।

দামঃ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস মোটরসাইকেলটি বাংলাদেশের বাজার অনুসারে এর বর্তমান বাজার মূল্য মাত্র ৪,১৫,০০০ টাকা।

শেষ কথাঃ

ইয়ামাহা আর ১৫ এস হচ্ছে ইয়ামাহা মোটরসাইকেল কোম্পানির জনপ্রিয় মোটরসাইকেল সিরিজ ইয়ামাহা আর ১৫ এর একটি আপডেটেড ভার্সন এবং এটি একটি উন্নত মানের স্পোর্টস ক্যাটাগরির ১৫০ সিসির বাইক যার স্টাইলিশ ডিজাইন ভাল মানের ইঞ্জিন কুয়ালিটি রঙের বৈচিত্র এবং এর শক্তিশালী সব ফিচার সমূহ সবকিছুই যে কোন মোটরসাইকেল প্রেমিকে মুগ্ধ করবে। আর নিঃসন্দেহে যে কেউ এই মোটরসাইকেলটি কিনতে আগ্রহী হবেন সহজেই।

Full Specification of Yamaha R15S

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।