হোম মোটরসাইকেল রিভিউ ফিচার রিভিউ টিভিএস মেট্রো ইএস (TVS Metro ES) ফিচার রিভিউ

টিভিএস মেট্রো ইএস (TVS Metro ES) ফিচার রিভিউ

0
1
টিভিএস মেট্রো ইএস

টিভিএস মেট্রো ইএস (TVS Metro ES) ফিচার রিভিউ

টিভিএস হচ্ছে বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড। আর ১০০ সিসির মোটরসাইকেলের মধ্যে টিভিএস এর মেট্রো সিরিজের মোটরসাইকেলগুলো বেশ জনপ্রিয় এবং সফল একটি মোটরসাইকেল বাংলাদেশের মোটরসাইকেল বাজারে। আর গুণে মানে সব দিক থেকেই টিভিএস এর মোটরসাইকেলগুল সেরা হওয়াই বাংলাদেশের সাধারণ মানুষদের কাছে এর স্ট্যান্ডার্ড ধরণের মোটরসাইকেলের কদর ব্যাপক। আর এতো সফলতা এবং বাংলাদেশের মানুষের এতো চাহিদার কারণে টিভিএস প্রতি বছর তাদের নিতুন নতুন সব মোটরসাইকেল বাজারে নিয়ে আসছে এবং বাংলাদেশের মানুষের নজর কাড়ছে। আর আজকে আমি আপনাদের মাঝে টিভিএস এর মেট্রো সিরিজের চমৎকার একটি মোটরসাইকেল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করতে চাই সেই মোটরসাইকেলটি হচ্ছে টিভিএস মেট্রো ইএস এবং এই আলোচনার মাধ্যমে আমরা জেনে নিবো যে কি কি ধরণের ফিচার সমূহ রয়েছে এই চমৎকার স্ট্যান্ডার্ড ক্যাটাগরির এই মোটরসাইকেলটিতে। তো চলুন জেনে নেয়া যাক টিভিএস মেট্রো ইএস (TVS Metro ES) মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যসমূহ।

ডিজাইনঃ

ডিজাইনের দিক থেকে বলতে গেলে এই টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটি দেখতে সত্যিই একদম স্ট্যান্ডার্ড ধরণের যার কারণে সহজেই মানুষকে আকৃষ্ট করতে সক্ষম এই মোটরসাইকেলটি। এই মোটরসাইকেলের সামনের দিক থেকে দেখতে গেলে প্রথমেই আপনার চোখে পড়বে এর চমৎকার হেডলাইটটি যেটি খুব সুন্দরভাবে ডিজাইন করা হয়েছে। আর এই বাইকের অন্যতম আকর্ষনিয় অংশ হচ্ছে বিভিন্ন রঙের কারুকাজ সমৃদ্ধ এর ফুয়েল ট্যাংকটি যেখানে এই ফুয়েল ট্যাংকটি বেশ চমৎকার ভাবে তৈরি করা হয়েছে এবং এর বডিতে চমৎকার কিছু রঙের সংমিশ্রন ঘটানো হয়েছে যা সহজেই মানুষের নজর কাড়বে। আর এই মোটরসাইকেলের পেছনের দিকে রয়েছে চমৎকার উঁচু নিচু ডিজাইনের একটি আরামদায়ক বসার সিট যেটি যেমন দেখতে সুন্দর তেমন এটিতে বসতেও বেশ আরামদায়ক। আর মোটরসাইকেল প্রেমিরা এই মোটরসাইকেলটি বেশ কয়েকটি রঙ্গে বাজারে পাবেন সেগুলো হচ্ছে কালো, সবুজ এবং সাদা।   

ইঞ্জিনঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস এই মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের মধ্যে রয়েছে ৪টি স্ট্রোক, সিঙ্গেল সিলিন্ডার এবং একটি এয়ার কোল্ড। আর এই বাইকের ৯৯.৭ সিসি ইঞ্জিন বেশ ভাল মানের যা এই বাইকের প্রতি আপনাকে আগ্রহী করে তুলবে সহজেই। টিভিএস মেট্রো ইএস এই বাইকের ইঞ্জিনের সর্বচ্চ পাওয়ার হচ্ছে ৭.৫ বিএইচপি এবং ৭৫০০ আরপিএম এবং বাইকের সর্বচ্চ তোরকিউ হচ্ছে ৭.৫ এনএম এবং ৫০০০ আরপিএম যেগুলো এই বাইকের ইঞ্জিনের শক্তি বৃদ্ধি করতে বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

গিয়ারঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে ৪ টি গিয়ার আর এই স্ট্যান্ডার্ড ধরণের বাইকের জন্য এই ধরণের গিয়ার যথেষ্ঠ।

স্পিড এবং মাইলিয়েজঃ

স্পিড এর দিক থেকে এই মোটরসাইকেলটি একটু দূর্বল হলেও মাইলিয়েজের দিক থেকে মোটামুটি ভাল এই টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটি। কারণ এই মোটরসাইকেলটি প্রতি ঘন্টায় সর্বচ্চ ৮০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিতে ছুটতে সক্ষম। এবং এই মোটরসাইকেলটি প্রতি লিটারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারবে যা দূরের পথে ভ্রমনের জন্য অনেক কার্যকর।

ফুয়েল ট্যাংকঃ  

মাঝাড়ি সাইজের একটি ফুয়েল ট্যাংক রয়েছে এই টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটির। এবং এই টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংকটিতে সর্বচ্চ ১৬ লিটার পর্যন্ত ফুয়েল গ্রহন করা যাবে যার দ্বারা আপনি সহজেই ৯৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত রাস্তা ভ্রমন করতে পারবেন সম্পুর্ণ ভর্তি ফুয়েল ট্যাংকে।

সাস্পেনশনঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলে দুটি বেশ মজবুত এবং মোটামুটি ভাল মানের সাস্পেনশন সিস্টেম রয়েছে। টিভিএস মেট্রো ইএস এই বাইকের সামনের অংশে একটি টেলিস্কপিক সাস্পেনশন এবং বাইকের পেছনের অংশে একটি ইউনিট সুইং ধরণের সাস্পেশন সিস্টেম সংযুক্ত করা হয়েছে।

ব্রেকঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলের ব্রেকগুলোও বেশ মজবুত এবং শক্তিশালী। এই মোটরসাইকেলের সামনের দিকে একটি ড্রাম ব্রেক এবং পেছনের দিকেও একটি ড্রাম ধরণের ব্রেকিং সিস্টেম রয়েছে।

দামঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটি বাংলাদেশের বাজার অনুসারে এর বর্তমান বাজার মূল্য মাত্র ১,৪,৯০০ টাকা।

শেষ কথাঃ

টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পর এটুকু বলা যায় যে এটি হচ্ছে একটি স্ট্যন্ডার্ড ধরণের এবং চমৎকার ডিজাইনের মোটরসাইকেল। এবং এই টিভিএস মেট্রো ইএস মোটরসাইকেলের ডিজাইন থেকে শুরু করে ইঞ্জিন, স্পিড, মাইলিয়েজ, ব্রেক, সাস্পেনশন সকল কিছুই অসাধারণ এবং বেশ ভাল মানের। যার কারণে যে কোন বাইকার বাইকটি নিঃসন্দেহে কিনতে পারেন।

Full Specification of TVS Metro ES
আরো প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ লোড করুন
আরো লোড করুন মোটরসাইকেলবিডি
আরো লোড করুন ফিচার রিভিউ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।