সুজুকি স্লিংশট প্লাস (Suzuki SlingShot Plus) ফিচার রিভিউ

সুজুকি স্লিংশট প্লাস


সুজুকি স্লিংশট প্লাস (Suzuki SlingShot Plus) ফিচার রিভিউ

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের মোটরসাইকেল প্রেমিদের কাছে সুজুকি মোটরসাইকেলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। আর আজকে আমি সুজুকি মোটরসাইকেল প্রেমিদের জন্য সুজুকি মোটরসাইকেল কোম্পানির চমৎকার একটি স্ট্যান্ডার্ড ক্যাটাগরির মোটরসাইকেল নিয়ে হাজির হয়েছি যে মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে জানার পর অনেকেই এই মোটরসাইকেলটি কিনতে আগ্রহী হবে। আর সেই মোটরসাইকেলটি হচ্ছে সুজুকি স্লিংশট প্লাস (Suzuki SlingShot Plus)। এই স্ট্যান্ডার্ড ধরণের মোটরসাইকেলে রয়েছে কিছু উন্নত মানের ফিচার যেগুলো এই মোটরসাইকেলের মান আরো বৃদ্ধি করেছে। তো চলুন জেনে নেয়া যাক সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যসমুহ।

ডিজাইনঃ

বেশ স্মার্ট এবং স্টাইলিশ ডিজাইনের মোটরসাইকেল হচ্ছে এই সুজুকি স্লিংশট প্লাস যার বডি ডিজাইন দেখে মোটরসাইকেল প্রেমিরা প্রথম দেখাতেই বাইকটির প্রেমে পড়ে যাবে। এই মোটরসাইকেলের সামনের অংশে রয়েছে হালকা লম্বা আকারের চমৎকার ডিজাইনের একটি হেডলাইট যেটি দেখতে চমৎকার এবং বেশ আকর্ষনিয়। আর এর মাঝাড়ি গড়ণের ফুয়েল ট্যাংকটি এমন স্মার্ট ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে যা যে কাউকে সহজেই আকৃষ্ট করবে। বাইকের পেছনে বসার আরামদায়ক সিটটিও চমৎকার উঁচু নিচু ভাবে ডিজাইন করে তৈরি করা হয়েছে যা বেশ আকর্ষনিয় দেখতে। আর অসাধারণ স্টাইলিশ ডিজাইনের এই সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটি ৪টি আলাদা রঙ্গে বাজারে পাওয়া যাবে সেগুলো হচ্ছে কালো, ধূসর, লাল এবং সাদা।

ইঞ্জিনঃ

একটি এয়ার কোল্ড, ৪টি স্ট্রোক, একটি সিঙ্গেল সিনিন্ডার এবং একটি এসও এইচ সি সমৃদ্ধ ইঞ্জিন দিয়ে সাজানো হয়েছে এই সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনটি। আর সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলের ডিস্প্লেসিমেন্ট ইঞ্জিন হচ্ছে ১২৪ সিসি। আর এই বাইকের ইঞ্জিনের সর্বচ্চ পাওয়ার হচ্ছে ৮.৫ বিএইচপি এবং ৭৫০০ আরপিএম এবং বাইকের সর্বচ্চ তোরকিউ হচ্ছে ১০ এনএম এবং ৩৫০০ আরপিএম। এছাড়াও বাইকটিতে আপনি পাবেন বাইকটি চালু করার দুটি মাধ্যম একটি ইলেক্ট্রিক ও একটি কিক স্টার্টিং সিস্টেম যেগুলো এই মোটরসাইকেলটিকে দ্রুত চালু করতে বাইকারকে অনেক সাহায্য করবে।

গিয়ারঃ

সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটিতে ৫টি গিয়ার বক্স সংযুক্ত করা হয়েছে যার মাধ্যমে আপনি সর্বচ্চ ৫ বার বাইকের গিয়ার পরিবর্তন করতে পারবেন।

স্পিড এবং মাইলিয়েজঃ

মোটামুটি ভাল মানের স্পিড এবং মাইলিয়েজ রয়েছে এই সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটিতে। এই মোটরসাইকেলটি প্রতি ঘন্টায় সর্বচ্চ ১০৫ কিলোমিটার গতি বেগে ছুটতে সক্ষম যা মোটামুটি ভাল মানের স্পিড এ ধরণের ১২৫ সিসি মোটরসাইকেলে। এছাড়াও এই বাইকটি আপনাকে প্রতি লিটারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত নিয়ে যেতে সক্ষম যা বেশ ভাল মানের মাইলিয়েজ।

ফুয়েল ট্যাংকঃ  

সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে চমৎকার ডিজাইনের একটি ফুয়েল ট্যাংক যা একদমি ভিন্ন ভাবে তৈরি করা হয়েছে যার কারণে এই ফুয়েল ট্যাংকটি সহজেই সবার নজর কাড়তে সক্ষম। আর এই ফুয়েল ট্যাংকটিতে সর্বচ্চ ১২ লিটার পর্যন্ত ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা রয়েছে যাতে করে আপনি এই ট্যাংকটি সম্পূর্ণ ভর্তি ফুয়েলে প্রায় ৭২০ কিলোমিটার পর্যন্ত ভ্রমন করতে পারবেন।

সাস্পেনশনঃ

বেশ উন্নত মানের দুটি সাস্পেনশন সিস্টেম তৈরি করা হয়েছে এই সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলের জন্য। এই বাইকের সামনের দিকে রয়েছে একটি টেলিস্কপিক কোইল স্প্রিং অইল ডামপেড ধরণের সাস্পেনশন এবং এর পেছনের দিকে আছে একটি সুইং আর্ম কোইল স্প্রিং অইল ডামপেড ধরণের সাস্পেনশন সিস্টেম যেগুলো সত্যিই বেশ শক্তিশালী এবং এ ধরণের স্ট্যান্ডার্ড বাইকের জন্য বেশ কার্যকর।

ব্রেকঃ

সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলের দুটি শক্তিশালী ব্রেক আপনাকে এই বাইকটি সহজে নিয়ন্ত্রন করতে সাহায্য করবে। এই বাইকের সামনের দিকে রয়েছে একটি ড্রাম ব্রেক এবং এর পেছনের দিকেও রয়েছে একটি ড্রাম ব্রেক যেগুলো সত্যিই খুব মজবুত এবং শক্তিশালী।

দামঃ

সুজুকি স্লিংশট প্লাস মোটরসাইকেলটি বাংলাদেশের বাজার অনুসারে এর বর্তমান বাজার মূল্য মাত্র ১,৪৯,৯৫০ টাকা।

শেষ কথাঃ

সুজুকি স্লিংশট প্লাস হচ্ছে সুজুকি মোটরসাইকেল কোম্পানির চমৎকার একটি স্ট্যান্ডার্ড ধরণের ১২৫ সিসি সমৃদ্ধ মোটরসাইকেল। আর এর ইউনিক স্টাইলিশ ডিজাইন, অসাধারণ স্পিড, ভাল মানের মাইলিয়েজ এবং এর বডিতে বিভিন্ন রঙের কারুকাজ সত্যিই যে কোন মোটরসাইকেল প্রেমিকে এই বাইকের প্রতি সহজেই আকৃষ্ট করবে। আর যে কোন মোটরসাইকেল প্রেমি নিঃসন্দেহে এই অসাধারণ ডিজাইনের মোটরসাইকেলটি কিনতে পারেন। 

Full Specification of Suzuki SlingShot Plus