হোম মোটরসাইকেল টিপস বাইক চালকদের জন্য নিরাপত্তা মূলক কিছু টিপস

বাইক চালকদের জন্য নিরাপত্তা মূলক কিছু টিপস

0
0
বাইক চালকদের জন্য নিরাপত্তা মূলক কিছু টিপস

বাইক চালকদের জন্য নিরাপত্তা মূলক কিছু টিপস

মোটরসাইকেল চালানো একটা মজার। তবে এটা সত্য যে, অন্য গাড়ি ড্রাইভ করার তুলনায় অনেক বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বাইক ড্রাইভিং। আমরা দেখতে পাই প্রতিদিন অনেক  সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। যদিও আপনি কখনো অন্যের মোটরসাইকেল চালাতে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন না। আমরা আপনার জন্য কিছু নিরাপদ টিপস দেবার চেষ্টা করবো যেন আপনার মোটরসাইকেল ড্রাইভিং করতে কোনো সমস্যা না হয়।

মোটরসাইকেল চালানোর পূর্বেই আপনি আপনার গাড়ির কাগজ ও ইঞ্জিন ভালোভাবে দেখে নিন।

আপনি আপনার মোটরসাইকেল এর ব্রেক, টায়ার, ইঞ্জিন , লুকিং গ্লাস, তেল, হাওয়া, সব ধরণের যন্ত্রাংশ দেখে নিন এবং সাথে কিছু প্রয়োজনীয় মেকানিক পার্টস ও নিন। কখনোই আপনি গাড়ির কোনো অনিরাপদ  পার্টস রাখবেন না। গাড়ির চালানোর পূর্বে আপনি আপনার স্থানে  ভালো ভাবে বসেন এবং লুকিং গ্লাস এর দিকে রাখেন।

ঘুমন্ত কিংবা অসুস্থ অবস্থায় গাড়ি চালাবেন না।

ঘুমন্ত কিংবা অসুস্থ অথবা ক্লান্ত অবস্থায় মানুষ বেশি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। এমন কি আপনি যদি নিজেকে উদাসীন মনে করেন এবং হতাশা গ্রস্ত হয়ে পরে আপনি অবশ্যই গাড়ি চালানো বন্ধ করেন। কারণ মানসিক হতাশা আপনার ড্রাইভিং কে নিরানন্দ করে তোলে। তাই আপনি পরিস্তিতি মুক্ত হয়ে গাড়ি চালান। সবশেষে বলবো আপনি যদি অনেক দূর পথ পারি দেন তাহলে ২ ঘন্টা পর ১৫ মিনিট করে বিশ্রাম করে নিন।

বিরক্ততা এড়িয়ে চলুন।

এটা মনে রাখবেন যে গাড়ি চালানোর সময় অবশ্যই নেশা গ্রহণ করা যাবেনা। মোবাইল ফোন ব্যবহার, গান শোনা বা গান গাওয়া যাবে না যা আপনার গাড়ি চালানোর মনোযোগ নষ্ট করতে পারে। কোন ধরনের মোবাইল এ বার্তা লেখালিখি করা যাবে না। আপনি হয়তো জানেন যে অনেক দুর্ঘটনা ঘটে থাকে শুধু মাত্র চলন্ত গাড়ি অবস্থায় মোবাইল ফোন ব্যবহার করার জন্য। তাই এগুলো অবশ্যই এড়িয়ে চলতে হবে|

নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন।

গাড়ি চালানোর সময় অবশ্যই আপনাকে আপনার গাড়ি থেকে নিরাপদ দূরত্বে বজায় রেখে গাড়ি চালাতে হবে। কখনো কোনো দ্রুত গাড়ির সাথে প্রতিযোগিতা করে গাড়ি চালাবেন না। মাথায় এইটা রাখতে হবে যে সময়ের  থেকে  জীবনের মূল্য অনেক বেশি।

আনুষঙ্গিক সরঞ্জাম  সাথে নিয়ে নিন।

যাত্রা পথে আমরা অনেক সময়ই নানা রকমের বিপত্তিতে  পড়তে  পারি, যেখানে নিজের কিছুই করার থাকে না। এমন পরিস্থিতি এড়াতে আমাদের সচেতন হওয়া দরকার। আমার মনে হয়, ভ্রমণের সময় কিছু অতিরিক্ত জিনিস সঙ্গে রাখলে এমন পরিস্থিতি ঘটার সম্ভাবনা হ্রাস করা যায়। অতিরিক্ত ক্লাচ কেবল ও এক্সিলারেটর কেবল সঙ্গে নিন। অতিরিক্ত স্পার্ক প্লাগ রাখুন। অতিরিক্ত ইঞ্জিন অয়েল রাখলেও মন্দ হয় না। কোনো ধরণের খারাপ যন্ত্রাংশ ব্যবহার করবেন না।

আরো প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ লোড করুন
আরো লোড করুন মোটরসাইকেলবিডি
আরো লোড করুন মোটরসাইকেল টিপস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।