হোম মোটরসাইকেল টিপস বাংলাদেশে মোটরসাইকেল রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়মাবলী

বাংলাদেশে মোটরসাইকেল রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়মাবলী

0
1
বাংলাদেশে মোটরসাইকেল রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়মাবলী

বাংলাদেশে মোটরসাইকেল রেজিষ্ট্রেশন করার নিয়মাবলী

আমরা যারা বাংলাদেশে বসবাস করি, আমরা ভালোভাবেই জানি যে সরকারি অফিসিয়াল কোন কাজে গেলে আমাদেরকে অনেক ধকল পোহাতে হয়। এই ফাইল সেই ফাইল রেডি করে এই ডেক্স হতে সেই ডেক্স ঘুরে অনেক বিড়ম্বনার শিকার হয়ে আমরা যখন কোন কাজ শেষ করতে পারি তখন অনেক ভালো লাগে।

গত কিছুদিন আগে আমি আমার মটর সাইকেলের রেজিষ্ট্রেশন করালাম । অনেক বিড়ম্বনার শিকার হয়ে যখন আমি আমার মটর সাইকেল রেজিষ্ট্রেশনের সকল কাগজ হাতে পেলাম আমার মনেহচ্ছিল যে আমি মনেহয় অলিম্পিকে স্বর্ণ জয় করলাম।

আমি মনেকরি আগে থেকে সঠিক দিকনির্দেশনা জানা থাকলে কাউকে এরকম বিড়ম্বনায় পরতে হবেনা। আমাদের মোটরসাইকেলবিডি ডটকমের সন্মানিত পাঠকগন যাতে এই বিড়ম্বনায় না পরে সেই জন্য আমি আমার বাস্তব অভিজ্ঞতা  অর্থাৎ মটর সাইকেল রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য যে সকল কাজ  করতে হয় তা বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরলাম।

আমি আব্দুল আলিম। এখানে আমার বাইক কেনা থেকে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত সকল প্রসেস ধাপে ধাপে উপস্থাপন করা হল:

ক) আপনার মোটরসাইকেল কেনার পর মটর সাইকেল সংক্রান্ত নিম্নে বর্নিত কাগজ সমুহ কোম্পানি বা ডিলারের কাছ থেকে সংগ্রহ করুন:

১) রেজিষ্ট্রেশন ফরম

২) ক্যাশ ম্যামো

৩) গেট পাশ এর স্লিপ

৪) মুসক ১১ চালান পত্র (যে ইম্পোর্টার এর নিকট থেকে ক্রয় করেছেন তার অনুকুলে) ১০.৫ টাকার ষ্টাম্প এ একজন আইনজীবি কতৃক সত্যায়িত।

৫) মুসক ১১ (ক) চালান পত্র (যে ডিলার এর নিকট থেকে ক্রয় করেছেন তার অনুকুলে)

৬) ট্রেজারী চালান সোনালী ব্যাংক (যে ইম্পোর্টার এর নিকট থেকে ক্রয় করেছেন তার অনুকুলে)

(যে ডিলার এর নিকট থেকে ক্রয় করেছেন তার অনুকুলে)

৭) ট্রেজারী চালান সোনালী ব্যাংক (ট্যাক্স অফিসার কতৃক সত্যায়িত)

৮) আমদানী সংক্রান্ত কাগজ পত্র (বি,আর,টি,এ কতৃক অনুমদিত)

৯) কাষ্টমস সংক্রান্ত কাগজ পত্র

বি:দ্র: উপরে উল্লেখিত সকল কাগজ পত্রের সাথে ইঞ্জিন নম্বর ও চেশিস নম্বর অবশ্যই মিলিয়ে নিতে ভুলবেননা।

খ) উপরে উল্লেখিত সকল কাগজ হাতে পাওয়ার পর বি,আর,টি,এ কতৃক অনুমদিত ব্যাংক এ টাকা জমা দিতে হবে। বি,আর,টি,এ কতৃক  ১০০ সিসি মোটর সাইকেলের উপর আরপিত সকল চার্জ নিম্নে উল্লেখিত হল:

১. নতুন রেজিষ্ট্রেশন  এর জন্য ৭,২০৫ টাকা

২. ট্যাক্স টোকেন  এর জন্য ১১,৫০০টাকা

৩. ডিজিটাল রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট ইস্যু এর জন্য ৫৫৫ টাকা

 অর্থাৎ সর্বমোট খরচ = ১৯২৬০ টাকা

গ) (ক) অনুচ্ছেদে বর্নিত সকল কাগজের  ব্যাংকের সকল রশিদ নিয়ে বি,আর,টি,এ অফিসে গিয়ে জমা দিতে হবে। এরপর আপনার সকল কাগজপত্র সঠিক থাকলে একজন মোটরযান পরিদর্শক আপনার মোটরসাইকেলটি সরজমিনে পরিদর্শন করবেন। এবং তিনি সবকিছু চেক করে আপনাকে একটি ছাড়পত্র দিবেন। এরপর মোটরযান পরিদর্শকের স্বাক্ষরীত ছাড়পত্র বি,আর,টিএ’র অফিস সেকশনে জমা দিতে হবে। আশাকরি জমা দেওয়ার ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে বি,আর,টি,এ অফিসে যোগাযোগ করলে আপনি রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার , ট্যাক্স টেকেন, একোনলেজমেন্ট স্লিপ পেয়ে যাবেন।

ঘ)  ডিজিটাল ব্লু- বুক পেতে বি,আর,টিএ’র ডিজিটাল রেজিষ্ট্রেশন সেকশন এ যোগাযোগ করুন। এই সময় টাকা জমা দেওয়ার রশিদ, ট্যাক্স টেকেন, রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার , একোনলেজমেন্ট স্লিপ এবং জাতীয় পরিচয় পত্র অবশ্যই সঙ্গে রাখবেন। আপনার সকল কাগজ পত্র ঠিক থাকলে ঐ দিন ই আপনার ছবি, স্বাক্ষর ও আঙ্গুলের ছাপ,  নেওয়া হবে।

আপনার ডিজিটাল ব্লু-বুক অর্থাৎ স্মার্ট কার্ড ও ডিজিটাল নম্বর প্লেট তৈরী হয়ে গেলে আপনার মোবাইলে ডেলিভারী তারিখ সহ এস,এম,এস আসবে। এস,এম,এসে উল্লেখিত নির্ধারিত তারিখে আপনাকে বি,আর,টি,এ অফিসে গিয়ে ডিজিটাল ব্লু-বুক (স্মার্ট কার্ড) ও ডিজিটাল নম্বর প্লেট সংগ্রহ করতে হবে।

ডিজিটাল নম্বর প্লেট সংক্রান্ত যেকোন তথ্যের জন্য আপনি যেই নম্বর দিয়ে রেজিস্টেশন ফরম পুরন করেছেন সেই নম্বর থেকে NP লিখে  ৬৯৬৯ এ একটি মেসেজ পাঠাতে হবে। অথবা তাদের হেল্প লাইন ০১৭৫৫৬১৫৯২৫ এ কল করে বিস্তারিত জানতে পারেন।

গুরুত্বপুর্ন কিছু বিষয় যা মনেরাখা জরুরি

১)  দালালের নিকট অর্থ অপচয় করবেন না নিজের গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন নিজেই করুন ।

২) ঝামেলার কথা ভেবে রেজিষ্ট্রেশনের দায়িত্ব কারো হাতে ছেড়ে দিবেন না।

৩) আপনি যত ঝামেলায় পরবেন তত শিখবেন।

৪) সময়ের চেয়ে জিবনের মূল্য অনেক বেশি

৫) সাবধানে মোটর সাইকেল চালাবেন । একটু অসাবধানতা আপনার পরিবারের জন্য বড় কষ্টের কারন হতে পারে।

আশাকরি এই লেখাটি পড়ার পর আপনার মোটর সাইকেল রেজিস্টেশন সমন্ধে অল্প হলেও ধারনা হয়েছে। আমার এই ক্ষদ্র প্রয়াস আপনাদের সামান্যতম উপকারে আসলে নিজেকে ধন্য মনে করব।

আপনার মূল্যবান সময় দেওয়ার জন অশেষ ধন্যবাদ

আরো প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ লোড করুন
আরো লোড করুন মোটরসাইকেলবিডি
আরো লোড করুন মোটরসাইকেল টিপস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।