হোম মোটরসাইকেল রিভিউ টেকনিক্যাল রিভিউ হোন্ডা সিবি টুইস্টার (Honda CB Twister) টেকনিকাল রিভিউ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার (Honda CB Twister) টেকনিকাল রিভিউ

0
0
Honda CB Twister

হোন্ডা সিবি টুইস্টার (Honda CB Twister) টেকনিকাল রিভিউ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার হচ্ছে হোন্ডা মোটরসাইকেল কোম্পানির নতুন একটি ১১০ সিসি সম্পূর্ণ স্ট্যান্ডার্ড মোটরসাইকেল। আর নতুন এই মোটরসাইকেলটি একদম ভিন্ন ধরণের ডিজাইন এবং বেশ কিছু ভাল মানের ফিচার নিয়ে হাজির হয়েছে যেগুলো মানুষদেরকে সহজেই এই মোটরসাইকেলের প্রতি আকৃষ্ট করবে। আর প্রতিযোগিতার এই বাজারে বর্তমানে স্পোর্টস বাইকের চাহিদা স্ট্যান্ডার্ড বাইকের চাইতে বেশি থাকলেও এখনো এ ধরণের স্ট্যান্ডার্ড বাইকের চাহিদা কোন অংশেও কম নয় আর তাই মোটরসাইকেল কোম্পানিগুলো স্টাইলিশ স্পোর্টস বাইকের পাশাপাশি এ ধরণের নতুন নতুন ডিজাইনের স্ট্যান্ডার্ড বাইক তৈরি করছে। আর এই হোন্ডা সিবি টুইস্টার (Honda CB Twister) মোটরসাইকেলটি টেকনিকাল দিক থেকেও মোটামুটি ভাল যেখানে রয়েছে কিছু শক্তিশালী টেকনিকাল উপাদান। তো চলুন জেনে নেয়া যাক এই নতুন মোটরসাইকেলের টেকনিকাল বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যসমূহ আশা করি এই তথ্যসমূহ মোটরসাইকেল প্রেমিদের বেশ উপকৃত করবে।

ডিজাইনঃ

ডিজাইনের দিক থেকে চমৎকার এই হোন্ডা সিবি টুইস্টার মোটরসাইকেলটি। এই মোটরসাইকেলের ভিন্ন ধরণের ডিজাইন মোটরসাইকেল প্রেমিদের আকৃষ্ট করবে সহজেই। এর সামনের অংশে রয়েছে চমৎকার ডিজাইনের একটি হেডলাইট যেটি বেশ আকর্ষনিয় দেখতে। আর এই মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংকের ভিন্ন ধরণের ডিজাইন সহজেই সবার চোখে পড়বে কারণ ফুয়েল ট্যাংকটির সামনের দিকে অনেকটা মাছের লেজের মতো দেখতে দুইপাশে দুটি সেপ তৈরি করা হয়েছে যেগুলো সত্যিই বেশ আকর্ষনিয় এবং বাইকটি প্রথম দর্শনেই যে কারো চোখে পড়বে চমৎকার ডিজাইনের সেপটি। আর বাইকের পেছনের অংশে রয়েছে মাঝাড়ি সাইজের একটি বসার সিট যার সামনের অংশ নিচু ধরণের হলেও পেছনের অংশ সামান্য উঁচু করা হয়েছে আর এই সিটটিতে মূলত দুইজন মানুষ আরহন করতে পারবে।

কন্ট্রোলঃ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার এই চমৎকার মোটরসাইকেলের কন্ট্রোলিং সিস্টেম নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবেনা বাইকারদের কারণ স্ট্যান্ডার্ড বাইক হিসেবে যথেষ্ঠ ভাল কন্ট্রোলিং সিস্টেম রয়েছে বাইকটিতে যা বাইকারদের চলার পথে স্বস্তি এনে দেবে।

ইঞ্জিনঃ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার বাইকের ১০৯ সিসি ডিস্প্লেসিমেন্ট ইঞ্জিনের সাথে একটি সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ৪টি স্ট্রোক এবং একটি পেট্রোল ইঞ্জিন দিয়ে সাজানো হয়েছে এই বাইকের ইঞ্জিনটি। আর এই ইঞ্জিনকে আরো শক্তিশালী করে তুলতে এবং ইঞ্জিনের পাওয়ার বৃদ্ধি করতে ইঞ্জিনটিতে রয়েছে ৯ বিএইচপি এবং ৮০০০ আরপিএম ম্যাক্সিমাম পাওয়ার এবং ৯ এন এম এবং ৬০০০ আরপিএম ম্যাক্সিমাম তোরকিউ। ইঞ্জিন এবং মোটরসাইকেল অনুযায়ি এই মোটরসাইকেলের গিয়ার খুবই কম, যেখানে এই মোটরসাইকেলটিতে ৪টি গিয়ার রাখা হয়েছে এখানে আরেকটি গিয়ার থাকলে বেশ ভাল হতো। তবে এই ইঞ্জিনে আপনি আরো পাবেন একটি ডিসি ডি আই ধরণের ইগনিশন সিস্টেম এবং বাইক চালু করার জন্য দুটি মাধ্যম একটি ইলেক্ট্রিক এবং একটি কিক।

<<=অন্যান্য ফিচার=>>

সাস্পেনশন এবং ব্রেকঃ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার ১১০ সিসির এই স্ট্যান্ডার্ড বাইকটিতে আপনি পাবেন ভাল এবং উন্নত মানের দুটি সাস্পেনশন সিস্টেম যেখানে বাইকের সামনের অংশে রয়েছে একটি টেলিস্কপিক সাস্পেনশন এবং বাইকের পেছনের অংশে রয়েছে উন্নত মানের একটি হাইড্রলিক সাস্পেনশন যেটি সত্যিই অসাধারণ এ ধরণের স্ট্যান্ডার্ড বাইকের জন্য। আর বাইকটি ভালভাবে কন্ট্রোল করতে এই বাইকের সামনের অংশে রাখা হয়েছে একটি ডিস্ক ব্রেক এবং পেছনের অংশে একটি ড্রাম ধরণের ব্রেকিং সিস্টেম রয়েছে যেগুলো মোটামুটি ভাল মানের ব্রেকিং সিস্টেম বলা যায়।  

হেডল্যাম্পঃ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার মোটরসাইকেলের হেডলাইটটি চমৎকারভাবে ডিজাইন করা হয়েছে আর এই আকর্ষনিয় হেডলাইটের ভেতরে রয়েছে একটি হ্যালোজেন ধরণের ৩৫/৩৫ ওয়াটের একটি হেডল্যাম্প যার সাথে রয়েছে একটি চমৎকার এল ই ডি টেইল ল্যাম্প এবং একটি টার্ন ল্যাম্প। আর এই চমৎকার ডিজাইনের হেডল্যাম্পটি শুধু দেখতেই সুন্দর না এর উজ্জলতাও বাইকারদের বেশ মুগ্ধ করবে।

স্পিড এবং মাইলিয়েজঃ

হোন্ডা সিবি টুইস্টার মোটরসাইকেলটির স্পিড বাইকারদের খুব একটা খুশি করতে পারবেনা কারণ ১১০ সিসির মোটরসাইকেল হলেও এই মোটরসাইকেলটি একদমি কম স্পিড সম্পূর্ণ একটি মোটরসাইকেল যেখানে এই মোটরসাইকেলটি সর্বচ্চ ৯৩ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে সক্ষম। তবে মাইলিয়েজের দিক থেকে বেশ ভাল এই মোটরসাইকেলটি যেখানে বাইকাররা এই মোটরসাইকেল নিয়ে প্রতি লিটারে প্রায় ৭১ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারবে বলে দাবি করে এই হোন্ডা সিবি টুইস্টার মোটরসাইকেলটি যা বেশ ভাল মানের মাইলিয়েজ। আর এই মোটরসাইকেলটির ফুয়েল ধারণ ক্ষমতাও খুবই কম কেননা এই মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংকটিতে সর্বচ্চ ৮ লিটার পর্যন্ত ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা রয়েছে যা খুবি কম ফুয়েল ক্যাপাসিটি।  

ভাল দিকঃ

  • চমৎকার নজরকাড়া ইউনিক ডিজাইন।

  • ভাল মানের মাইলিয়েজ।
  • হাইড্রলিক সাস্পেনশন সিস্টেম।

খারাপ দিকঃ

  • কম গিয়ার সম্পূর্ণ মোটরসাইকেল।

  • স্পিড খুবই কম।
  • ফুয়েল ক্যাপাসিটি খুবই কম।

শেষ কথা

হোন্ডা সিবি টুইস্টার এই নতুন স্ট্যান্ডার্ড বাইক প্রথম দেখে যে কেউ পছন্দ করবে বিশেষ করে এর ভিন্ন ধরণের নির্মাণ শৈলি মোটরসাইকেল প্রেমিদের সহজেই আকৃষ্ট করতে যথেষ্ঠ। এছাড়াও হাতে গুণা কিছু খারাপ দিক ছাড়া বেশ ভাল মানের কিছু টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে এই মোটরসাইকেলটিতে যেগুলো একটি স্ট্যান্ডার্ড বাইকের জন্য বেশ ভাল।  

Full Specification of Honda CB Twister
আরো প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ লোড করুন
আরো লোড করুন মোটরসাইকেলবিডি
আরো লোড করুন টেকনিক্যাল রিভিউ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।