বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক (Bajaj Platina Comfortec) ফিচার রিভিউ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক


বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক (Bajaj Platina Comfortec) ফিচার রিভিউ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক হচ্ছে বাজাজ মোটরসাইকেল কোম্পানির আপকামিং একটি মোটরসাইকেল এবং এটি হচ্ছে বাজাজ প্লাটিনা সিরিজের একটি আপডেটেড মোটরসাইকেল। আর অন্যান্য বাজাজ প্লাটিনা মোটরসাইকেলের মতোই এই মোটরসাইকেলে রয়েছে স্মার্ট এবং স্ট্যান্ডার্ড ধরণের চমৎকার ডিজাইন এবং এই নতুন মোটরসাইকেলটিতে সংযুক্ত করা হয়েছে কিছু নতুন এবং ভিন্ন ধরণের ফিচার যেগুলো বেশ উন্নত মানের এবং শক্তিশালী যা বাইকারদের জন্য বেশ ভাল। তো চলুন আর দেরি না করে জেনে নেয়া যাক কি কি ফিচার সংযুক্ত করা হয়েছে নতুন এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক (Bajaj Platina Comfortec) মোটরসাইকেলটিতে।

ডিজাইনঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলের ডিজাইন আগের বাজাজ প্লাটিনা মোটরসাইকেলের মতোই লম্বা আকারের এবং একদম একি রকম ডিজাইন যার জন্যে এ দুটি মোটরসাইকেল একসাথে দেখলে কেউ আলাদা করতে পারবেনা কিন্তু ডিজাইনের দিকে একি রকম হলেও এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে কিছু নতুন ফিচার যা আগের বাজাজ প্লাটিন মোটরসাইকেলের চেয়ে অনেক আলাদা। আর বেশ লম্বা দেহের মোটরসাইকেল হচ্ছে এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক যাতে রয়েছে একটি লম্বা আকারের ফুয়েল ট্যাংক যাতে চমৎকার কিছু রঙের সংমিশ্রণ ঘটানো হয়েছে যার কারণে মোটরসাইকেলটি দেখতে বেশ চমৎকার হয়ে উঠেছে। আর এই বাইকের লম্বা সিটটি বেশ চমৎকারভাবে তৈরি করা হয়েছে এবং এটি বেশ আরামদায়ক। আর এই বাইকের লম্বা সিটটিতে সর্বচ্চ ৩ জন মানুষ আরহন করার ক্ষমতা রয়েছে যা বেশ ভাল।

ইঞ্জিনঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক এই মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের মধ্যে রয়েছে একটি সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ২টি ভাল্ভ এবং ডিটিএস-আই এর সাথে এক্সহাউজ টেক। আর এই বাইকের ১০২ সিসি ইঞ্জিনটি বেশ ভাল মানের যা এই বাইকের প্রতি আপনাকে আগ্রহী করে তুলবে সহজেই। বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক এই বাইকের ইঞ্জিনের সর্বচ্চ পাওয়ার হচ্ছে ৮. বিএইচপি এবং ৭৫০০ আরপিএম এবং বাইকের সর্বচ্চ তোরকিউ হচ্ছে ৮.৬ এনএম এবং ৫০০০ আরপিএম যেগুলো এই বাইকের ইঞ্জিনের শক্তি বৃদ্ধি করতে বেশ কার্যকর ভূমিকা রাখবে। এছাড়াও বাইকের ইঞ্জিনে আরো রয়েছে একটি ডিটিএস-আই ধরণের ইগনিশন সিস্টেম এবং বাইকটি চালু করতে বাইক চালু করার দুটি মাধ্যম একটি ইলেক্ট্রিক ও একটি কিক।

গিয়ারঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে ৪ টি গিয়ার আর এই স্ট্যান্ডার্ড ধরণের বাইকের জন্য এই ধরণের গিয়ার যথেষ্ঠ।

স্পিড এবং মাইলিয়েজঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেল স্পিড ও মাইলিয়েজের দিক থেকে মোটামুটি ভাল এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলটি প্রতি ঘন্টায় সর্বচ্চ ১০৪ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিতে ছুটতে সক্ষম। এবং এই মোটরসাইকেলটি প্রতি লিটারে ৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারবে যা দূরের পথে ভ্রমনের জন্য অনেক কার্যকর।

ফুয়েল ট্যাংকঃ  

মাঝাড়ি সাইজের লম্বা ধরণের একটি ফুয়েল ট্যাংক রয়েছে এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলটিতে। এবং এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংকটিতে সর্বচ্চ ১১.৫ লিটার পর্যন্ত ফুয়েল গ্রহন করা যাবে যার দ্বারা আপনি সহজেই ১০৩৫ কিলোমিটার পর্যন্ত রাস্তা ভ্রমন করতে পারবেন সম্পুর্ণ ভর্তি ফুয়েল ট্যাংকে।

সাস্পেনশনঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলে দুটি বেশ মজবুত এবং মোটামুটি ভাল মানের সাস্পেনশন সিস্টেম রয়েছে। বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক এই বাইকের সামনের অংশে একটি টেলিস্কপিক সাস্পেনশন এবং বাইকের পেছনের অংশে একটি এস এন এস ধরণের সাস্পেশন সিস্টেম সংযুক্ত করা হয়েছে।

ব্রেকঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলের ব্রেকগুলোও বেশ মজবুত এবং শক্তিশালী। এই মোটরসাইকেলের সামনের দিকে একটি ড্রাম ব্রেক এবং পেছনের দিকেও একটি ড্রাম ধরণের ব্রেকিং সিস্টেম রয়েছে।

শেষ কথাঃ

বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক হচ্ছে বাজাজ মোটরসাইকেল কোম্পানির প্লাটিনা সিরিজের আপকামিং একটি মোটরসাইকেল। আর এই মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পর এটুকু বলা যায় যে এটি হচ্ছে একটি স্ট্যন্ডার্ড ধরণের এবং চমৎকার ডিজাইনের মোটরসাইকেল। এবং এই বাজাজ প্লাটিনা কমফোর্টেক মোটরসাইকেলের ডিজাইন থেকে শুরু করে ইঞ্জিন, স্পিড, মাইলিয়েজ, ব্রেক, সাস্পেনশন সকল কিছুই  অসাধারণ এবং বেশ ভাল মানের। যার কারণে যে কোন বাইকার বাইকটি নিঃসন্দেহে কিনতে পারেন।

Full Specification of Bajaj Platina Comfortec